শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০৭:৪৫ অপরাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক:
চলচ্চিত্র নায়ক শাকিব খানের কাছে স্ত্রীর নাম, পিতার নাম ও মাতার নাম যুক্ত যেকোনো ডকুমেন্ট চেয়েছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। তার স্ত্রী’র নামে রাজউক থেকে কোন প্লট বা ফ্ল্যাট বরাদ্দ রয়েছে কি না এটা যাচাইয়ের জন্য স্ত্রীর তথ্য চাওয়া হয়েছে। এর বিপরীতে এরই মধ্যে তালাক নোটিশ রাজউকের কাছে জমা দিয়েছেন শাকিব খান।

এর ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে রাজউক। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সালের ১৭ই সেপ্টেম্বর নায়ক শাকিব খান রানা শিল্পী, সাহিত্যিক, ক্রীড়াবিদ ক্যাটাগরিতে লটারিতে ১০ কাঠা আয়তনের প্লট বরাদ্দ পান। এরই মধ্যে প্লটের বিপরীতে পুরো কিস্তির ৩০ লাখ টাকা পরিশোধ করেছেন তিনি।

কয়েক মাস আগে যে অবস্থায় আছে ওই অবস্থায় প্লটের দখল নিতে রাজউকে আবেদন করেন তিনি। গত ২৮শে মার্চ রেজিস্ট্রি ডাকযোগে শাকিব খান রানাকে স্ত্রীর তথ্য জমা দেয়ার অনুরোধ করেন রাজউকের সহকারী পরিচালক (এস্টেট-৩) মো. আলম।

ওই চিঠিতে সহকারি পরিচালক শাকিব খানকে জানান, আপনার আবেদনের প্রেক্ষিত্রে অত্র নথির তথ্য হালনাগাদ করতে আপনার ও আপনার স্ত্রীর জাতীয় পরিচয়পত্রের সত্যায়িত কপি এবং আপনার স্ত্রীর জন্ম নিবন্ধন/এসএসসি পাশের সনদপত্রের সত্যায়িত কপি/কাবিননামার কপি উপ- পরিচালক (এস্টেট ও ভূমি-৩), রাজউক, ঢাকা এর বরাবরে দাখিল করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

অন্যথায় আপনার আবেদনের বিষয়টি নিষ্পত্তি করা সম্ভব হচ্ছে না। রাজউক সূত্রে জানা গেছে, শাকিব খান রানার কাছে চিঠিটি তার গুলশান-২ এর ফ্ল্যাটের ঠিকানায় পাঠানো হয়। চিঠি পেয়ে শাকিব খান রানা ১লা এপ্রিল তার জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি এবং স্ত্রী অপু বিশ্বাসের সঙ্গে তার বিচ্ছেদের নোটিশ পাঠিয়েছেন।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন মেয়রের বরাবরে ইংরেজিতে লেখা দুই পাতার ডিভোর্স লেটারে বলা হয়েছে, মুসলিম শরীয়া আইন মোতাবেক আমি শাকিব খান রানা অপু ইসলাম খান ওরফে অপু বিশ্বাস, পিতা- উপেন্দ্র নাথ বিশ্বাস এবং মাতা শেফালী বিশ্বাসকে বিবাহ করেছি। আমি তার সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ করতে চাই। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ করছি। রাজউক সূত্রে জানা গেছে, শাকিব খান রানার ডিভোর্স লেটারের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় কাজ করছে তারা। সহসাই প্লটের দখল ও লীজ দলিল রেজিস্ট্রি সংক্রান্ত সব কাজ শেষ করা হতে পারে।

এদিকে গত মার্চের মাঝামাঝি সময়ে চলচ্চিত্র তারকা দম্পতি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিবাহবিচ্ছেদ আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যকর হয়েছে। তিন দফা শুনানির পর বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যকর করা হয়। এর আগে ২০০৮ সালের ১৮ই এপ্রিল গোপনে বিয়ে করেন বাংলাদেশি ছবির জনপ্রিয় জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস।

২০১৬ সালের ২৭শে সেপ্টেম্বর জন্ম হয় তাদের সন্তান আব্রাম খান জয়। শাকিব-অপু দুজনেই সন্তানের জন্মের বিষয়টি গোপন রাখেন। ২০১৭ সালের ১০ই এপ্রিল একটি টিভি চ্যানেলের সরাসরি অনুষ্ঠানে এসে বিয়ে ও সন্তানের খবর ফাঁস করেন অপু বিশ্বাস। এরপর থেকেই শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের মধ্যে ঝামেলা শুরু হয়। বিবাহবিচ্ছেদের মাধ্যমে এর শেষ পরিণতি পায়

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: