শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:১৮ অপরাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক:
গীতিকার, সুরকার ও সঙ্গীত শিল্পী প্রীতম আহমেদকে শনিবার রাতে ফেসবুকের একটি লাইভে ‘বেয়াদব’ বলে আখ্যা দেন শিল্পী আসিফ অাকবর। এছাড়া প্রীতমের নামে নানা অভিযোগও করেন তিনি। এসব প্রসঙ্গে বুধবার এক বেসরকারি টিভির লাইভ অনুষ্ঠানে প্রীতম আহমেদ বলেন, ‘শিল্পী হিসেবে আমি প্রথমেই সবার কাছে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি, এসব লজ্জাকর পরিস্থিতির জন্য। আমাদের শিল্পীদের মধ্যে এ ঘটনা ঘটবে তা আমরা ভাবতেও পারি না।’

এসময় তিনি বলেন, ‘আসিফের বিরুদ্ধে শফিক তুহিনের যে অভিযোগ ছিল তা হলো সামাজিকভাবে অপপ্রচার ও হুমকি দেওয়া। এরকম ২-৩ লাখ হুমকি আমার এবং অন্যান্য শিল্পীদের নামেও পাবেন।

প্রীতম আরো বলেন, ‘আমি অনেক দুঃখভারাক্রান্ত মন নিয়ে বলছি, একজন মানুষের জন্য আমরা রাত-দিন জেগে সুর করে দিয়েছি। তিনি গান গাইবেন তার গানটা হিট হবে, আমরা গর্ব করবো। আজকে সেই মানুষটার জন্যই আমাদের অভিযোগ লিখতে হচ্ছে। কারণ একটাই, উনি আমাদের সামাজিক জীবন, ব্যবসায়িক জীবনকে ধূলিসাৎ করে দিয়েছেন। মানুষ এখন আমাদের পাগল ভাবে, সাইকো ভাবেন।’

প্রীতম বলেন, ‘আসিফ লাইভে বলেছেন, ‘আমি নাকি ড্রাগস নেই এবং যার কাছ থেকে নেই তাকেও নাকি তিনি চিনেন। অথচ আমি সিগারেটও খাই না। এই বিষয়গুলো উনি ব্যক্তিগতভাবে করেছেন।’তবে, আমি চাই আসিফ ন্যায় বিচার পাক, শফিক তুহিন ক্ষতিগ্রস্ত হলে সেও ন্যায় বিচার পাক।’

সংবাদভিত্তিক টেলিভিশন ‘চ্যানেল ২৪’ সার্চলাইট নামে ১ জুন রাতে ২০ মিনিটের একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রতিবেদন থেকে সুরকার ও কণ্ঠশিল্পী শফিক তুহিন জানতে পারেন আসিফ আকবর অনুমতি ছাড়াই তার সংগীতকর্মসহ অন্যান্য গীতিকার, সুরকার ও শিল্পীর ৬১৭টি গান সবার অজান্তে বিক্রি করেছেন।

এর প্রেক্ষিতে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে করা একটি মামলায় কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাত দেড়টায় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) একটি টিম তাকে গ্রেফতার করে।সিআইডির অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার মিনহাজুল ইসলাম জানান, তথ্যপ্রযুক্তি আইনে তেজগাঁও থানার সুরকার ও কণ্ঠশিল্পী শফিক তুহিনের করা একটি মামলায় আসিফকে গ্রেফতার করা হয়েছে, যার মামলা নম্বর ১৪।সোমবার সন্ধ্যায় শফিক তুহিনের করা এ মামলায় আসিফ আকবর ছাড়া আরও ৪-৫ জন অজ্ঞাত আসামি রয়েছে বলেও জানায় পুলিশ।

বুধবার তাকে আদালতে উপস্থাপন করে সাত দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছেন নজরুল ইসলাম।
কিন্তু আদালত রিমান্ড নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: