1. jagocomilla24@gmail.com : jago comilla :
  2. weekybibarton@gmail.com : Amit Mazumder : Amit Mazumder
  3. sufian3500@gmaill.com : sufian Rasel : sufian Rasel
  4. sujhon2011@gmail.com : sujhon :
বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১০:২৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজঃ
নিরাপত্তা বিবেচনায় সব স্কুল-কলেজ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা টাইব্রেকারে ব্রাজিলকে বিদায় করে সেমিতে উরুগুয়ে বাজপাখি মার্টিনেজ নৈপুণ্যে সেমিতে আর্জেন্টিনা কুমিল্লায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে এনটিভির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন চাঁদপুর হাজীগঞ্জে সেনাবাহিনীর ফ্রি চিকিৎসা সেবা ও ওষুধ পেলেন প্রায় দেড় হাজার মানুষ শিশু-কিশোরদের অবক্ষয় রোধে বিদ্যালয়ে বিদ্যালয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান কুমিল্লায় স্ত্রীকে হত্যা ১০ বছর পর স্বামীর ফাঁসির আদেশ! ১ হাজার ৪৪ কোটি ৫০ লাখ  টাকার বাজেট ঘোষণা করলেন কুমিল্লা সিটি মেয়র ডাঃ তাহসীন বাহার সূচনা আজ থেকে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু শেষটা রাঙিয়ে অবসরের ঘোষণা কোহলির

রোজা ভেঙে হিন্দুর সন্তানকে বাঁচাতে রক্ত দিলেন যুবক

  • প্রকাশ কালঃ বৃহস্পতিবার, ৩১ মে, ২০১৮
  • ৫২৬

অনলাইন ডেস্ক:

ভারতের বিহারের দ্বারভাঙা জেলার এক মুসলিম যুবক দুই দিনের নবজাতককে বাঁচাতে রোজা ভেঙে রক্ত দিলেন। দুদিন আগে রমেশকুমারের স্ত্রী আরতি দ্বারভাঙার একটি নার্সিংহোমে ভর্তি হোন। সেখানেই একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন তিনি। কিন্তু জন্মের পর নবজাতকের শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। চিকিৎসকরা জানান, নবজাতককে বাঁচাতে রক্ত লাগবে। রক্তের গ্রুপ ‘ও নেগেটিভ’। কিন্তু পরিবারের কোনো সদস্যের ‘ও নেগেটিভ’ রক্ত নেই।

উপায় না দেখে রক্তের জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমকে বেছে নিলেন নবজাতকের পরিবার। ফেসবুক আর ওয়াটসঅ্যাপের বিভিন্ন গ্রুপে বিষয়টি জানিয়ে ‘ও নেগেটিভ’ রক্তের জন্য আবেদন করেন।

বিহারের দ্বারভাঙার বাসিন্দা মোহম্মদ আশফাক। তার রক্তের গ্রুপ ‘ও নেগেটিভ’। ২৮ মে সোমবার ফেসবুকে বার্তাটি দেখতে পান তিনি। সঙ্গে সঙ্গে নবজাতকের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন আশফাক।
আশফাক দেরি না করে নবজাতককে রক্ত দিতে নার্সিংহোমে চলে যান। কিন্তু আশফাক রোজা রাখার কারণে চিকিৎসক তার রক্ত নিতে পারবেন না বলে জানান। কারণ হিসেবে চিকিৎসক জানান, রোজা থাকা অবস্থায় রক্ত দিলে আশফাক নিজেই অসুস্থ হয়ে যেতে পারেন। আশফাক কোনো উপায় না দেখে বাধ্য হয়ে রোজা ভাঙার সিদ্ধান্ত নিলেন। রোজা ভেঙে খাবার খেয়ে রক্ত দেন তিনি। আর সেই রক্তেই বেঁচে যায় নবজাতকটি। আশফাক বলেন, ‘এই রোজাটি পরে অন্য সময় রাখা যাবে।’

নবজাতকটির পরিবার জানায়, ধর্মের নামে ঘৃণার পরিবেশ তৈরি করেন যারা, তারা আশফাকের কাছ থেকে শিক্ষা নিতে পারেন।

সূত্র: খালিজ টাইমস/আনন্দবাজার

শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুনঃ

© All rights reserved © 2024 Jago Comilla
Theme Customized By BreakingNews