শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৫:৩৯ অপরাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক :

মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে রস ছাড়া ভেজাল খেজুর গুড় তৈরির দায়ে ৫ ব্যবসায়ীকে ছয় হাজার টাকা জরিমানা ও দুটি কারখানা বন্ধ করে দিয়েছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

মঙ্গলবার (০১ ফেব্রয়ারি) ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদফতরের মানিকগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল জরিমানা করেন ও কারখানা দুটি বন্ধ করে দেন।

জানা গেছে, জেলার হরিরামপুর উপজেলার ঝিটকা, মজমপাড়া, গোড়াইল ও গোপীনাথপুর এলাকায় ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালিত হয়। এ সময় মজমপাড়া গ্রামের মো. ককেলের বাড়িতে খেজুর রস ছাড়াই তৈরি হচ্ছিল পাটালি গুড়। অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে পালিয়ে যান ভেজালকারী মূলহোতা। তবে বসতবাড়ি ও রান্নাঘর থেকে জব্দ করা হয় ভেজাল গুড় তৈরির সরঞ্জাম, চুন, বাসি লালি ও প্রায় এক মণ ভেজাল গুড়। পরে জব্দ করা মালামাল, গুড় ও চুলা ধ্বংস করা হয়।

জেলার ভোক্তা অধিদফতরের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামন রুমেল বলেন, ঝিটকা এলাকায় খেজুর রস থেকে তৈরি হয় বিখ্যাত হাজারী গুড়। শীতের সময় কিছু অসাধু ব্যবসায়ী হাজারী গুড়ের সুনামকে পুঁজি করে ভেজাল খেজুর গুড় তৈরি করে আসছে।

আজ অভিযান চালিয়ে ভেজাল গুড় তৈরির দায়ে মজমপাড়া, গোড়াইল ও মালুচি গ্রামের গাফফার, খলিল, ককেল মোয়াজুদ্দিন, আলাউদ্দিন ও সেন্টু মিয়াকে ৬ হাজার টাকা জরিমানাসহ ৫ মণের বেশি ভেজাল গুড় ধ্বংস করা হয়েছে। এ সময় মজমপাড়ার ককেল ও রাজশাহী থেকে আসা মৌসুমি ব্যবসায়ী সেন্টু মিয়ার গুড় কারখানা স্থায়ীভাবে বন্ধ করা হয়েছে। জনস্বার্থে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: