রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৫০ পূর্বাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক:
বেশ কয়েকটি মুসলিম দেশের ওপর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেয়া নিষেধাজ্ঞা বহাল রেখে রায় দিয়েছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। যুক্তরাষ্ট্রের নিম্ন আদালত ট্রাম্পের এ নীতিকে অসাংবিধানিক হিসেবে বিবেচনা করলেও উচ্চ আদালত এর বিপরীত মত দিয়ে একটি রুল জারি করেছে।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসি তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মঙ্গলবার উচ্চ আদালতের এই নিষেধাজ্ঞার পক্ষে পাঁচজন ও বিপক্ষে চারজন বিচারক রায় দেন।

এই নিষেধাজ্ঞার কারণে পাঁচ মুসলিম অধ্যুষিত দেশ ইরান, লিবিয়া, সিরিয়া, সোমালিয়া এবং ইয়েমেনের অধিকাংশ নাগরিক যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন না। তবে এর সঙ্গে উত্তর কোরিয়া ও ভেনেজুয়েলার নাগরিকরাও রয়েছেন।

সুপ্রিম কোর্টের এই সিদ্ধান্তকে বিজয় হিসেবে দেখছে ট্রাম্প প্রশাসন। কিন্তু শরণার্থী ও মানবাধিকার সংস্থাগুলো ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্তকে শুরু থেকেই ব্যাপক সমালোচনা করছে।

প্রধান বিচারক জন রবার্টস তার মতামতে লিখেছেন, এই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা স্পষ্টতই প্রেসিডেন্টের এখতিয়ারের মধ্যে পড়ে।

২০১৭ সালের জানুয়ারিতে দায়িত্ব নেয়ার এক সপ্তাহ পর ট্রাম্প এ বিষয়ে প্রথম পদক্ষেপ নেন। দুই দফা ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারির পর আদালতের বাধার মুখে পড়েন ট্রাম্প। সেই পদক্ষেপের বিষয়ে তৃতীয় ধাপের আইনি লড়াই চলে।

গত বছরের এপ্রিলে এই বিষয়ে শুনানির পর জুনে সুপ্রিম কোর্ট এক রুলিং দেয়। এতে বলা হয়, ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ফেডারেল অভিবাসন আইন ভঙ্গ করছে। একই সঙ্গে মার্কিন সংবিধানের ধর্মীয় বৈষম্য নিরসন ধারার সঙ্গে সাংঘর্ষিক এই নিষেধাজ্ঞা। এরপর সেপ্টেম্বরে ট্রাম্প ছয়টি মুসলিম দেশ চাদ, ইরান, লিবিয়া, সোমালিয়া, সিরিয়া এবং ইয়েমেনের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে সাম্প্রতিক আদেশ জারি করেন ট্রাম্প।

এরপর আজ মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট পাঁচ মুসলিম দেশসহ সাতটি দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দিল।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: