শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৩৭ অপরাহ্ন

আবদুল্লাহ আল মারুফ :

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার ক্যান্টনমেন্ট থেকে গৌরীপুর এলাকার প্রায় ৩৫ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে যানজট সৃষ্টি হয়। ভোর ৬টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত এই জটলা স্থায়ী হয়। দুপুর ১২টার পর থেকে যানজট ছাড়তে থাকে। কিন্তু স্থায়ী যানজট না থাকলেও গাড়ির চাপে যান চলাচলে ধীরগতি দেখা গেছে। তবে কুমিল্লার দাউদকান্দি টোলপ্লাজা এলাকার পর কয়েক কিলোমিটার ফাঁকা থাকলেও মুন্সিগঞ্জ থেকে নারায়ণগঞ্জ এলাকার সোনারগাঁও পর্যন্ত আবার দীর্ঘ যানজট লেগেছে।

কুমিল্লা থেকে ঢাকাগামী বাসের যাত্রী সবুজ ছোটন জানান, সকাল ৯ টায় কুমিল্লা থেকে রওনা হয়ে দুপুর আড়াইটা বাজে। আমি এখন নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও এলাকার আছি। এখনও ঢাকায় যেতে পারিনি। দাউদকান্দি টোল প্লাজার পর সামান্য কয়েক কিলোমিটার ফাঁকা ছিল। এখনও যানজটে আছি। জানিনা কখন ঢাকা যাই।

দুপুর দুইটার দিকে জানা গেছে, কুমিল্লা অংশের ক্যান্টনমেন্ট থেকে শুরু করে যানবাহন ধীরগতিতে চলছে। এবং চান্দিনা ও ইলিয়টগঞ্জ পার হয়ে এই ধীরগতির দাউদকান্দির গৌরীপুর পর্যন্ত ঠেঁকেছে। টোল প্লাজা এলাকার পর কয়েক কিলোমিটার ফাঁকা।

চট্টগ্রামগামী ট্রাক চালক খায়ের মিয়া বলেন, রোডে এখন জ্যাম নাই, তবে গাড়ির চাপ বেশি। তাই আস্তে যাইতে হইতেছে। এতে চট্টগ্রাম যাইতে অনেক সময় লাগতেছে।

চান্দিনা এলাকার বাসিন্দা কাউছার আহমেদ জানান, সকালে এসেছি যানজটের মধ্য দিয়ে। এখনও যানজট কাটলেও ধীরগতি আছে। এখন আবার বাড়ি ফিরছি। বৃহস্পতিবারে এমনিতেই গাড়ির চাপ থাকে তার উপর সকালের জ্যামের কারণে সড়কে অনেক গাড়ি রয়েছে। এছাড়া বাজার এলাকাগুলোতে কিছুটা যানজট রয়েছে।

উল্লেখ, বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) ভোর রাতে মাধাইয়া এলাকার নুড়িতলা এলাকায় একটি লরি রাস্তায় পড়ে যায়। এতে দুই লেনের গাড়ি এক লেনে চলা শুরু করে। দূর্ঘটনার কারণে সকাল হতেই সড়কটিতে ছিলো যানজট, দুপুরের দিকে যানজট কমলেও এর কারণে সৃষ্ট গাড়ির চাপ ও বৃহস্পতিবার হওয়ায় গাড়ির অত্যধিক চাপে যানবাহন চলছে ধীরগতিতে।

দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক মো. সালাউদ্দিন বলেন, যানজট নেই। ধীরগতিতে এখনও যানচলাচল করছে। তবে আশাকরি ঘণ্টাখানের মধ্যেই ক্লিয়ার হবে। আমরা সড়কেই আছি।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: