শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:১৩ অপরাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক:
চুয়াডাঙ্গায় বন্দুকযুদ্ধে নিহত মাদক ব্যবসায়ী জনাব আলীছয় জেলায় র‍্যাব ও পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ৮ মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। এর মধ্যে যশোরে তিন জন এবং চুয়াডাঙ্গা, ঝিনাইদহ, টাঙ্গাইল, রাজশাহী ও নরসিংদীতে একজন করে নিহত হয়। রবিবার (২০ মে) রাতে এসব ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে শনিবার (১৯ মে) রাতে বন্দুকযুদ্ধে ছয় জেলায় নিহত হয় ছয় মাদক ব্যবসায়ী।

ছয় জেলা থেকে আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানোর তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি করা হয়েছে।

যশোর

যশোর সদর উপজেলায় নিজেদের মধ্যে গোলাগুলিতে তিন মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশের ভাষ্য,রবিবার (২০ মে) দিবাগত রাতে খোলাডাঙ্গা ও মণ্ডলগাতির মাঝামাঝি এলাকা এবং তরফনওয়াপাড়ায় এ দুই ঘটনা ঘটে এবং এতে তিন জন নিহত হয়। কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজমল এ তথ্য জানিয়েছেন।

ওসি আজমল হুদা,এসআই অরুণ কুমার দাস ও উপশহর ক্যাম্পের ইনচার্জ আবদুর রহিম দাবি করেন,গভীর রাতে খোলাডাঙ্গা ও মণ্ডলগাতির মাঝামাঝি ফাঁকা জায়গায় দুই দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে গোলাগুলি হচ্ছে –এমন এক খবর পায় পুলিশ। পরে তারা ঘটনাস্থলে গেলে অস্ত্রধারীরা পালিয়ে যায়। এসময় সেখান থেকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির লাশ ও দু’টি শাটারগান ও দুই রাউন্ড গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়।

এ তিন সূত্র আরও দাবি করে,একই ধরনের ঘটনা ঘটে তরফনওয়াপাড়া গ্রামের নওয়াব আলী নামের এক ব্যক্তির মেহগনি বাগানে। মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে গোলাগুলির খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে পুলিশ দু’টি লাশ, দু’টি পিস্তল,দুই রাউন্ড তাজা গুলি,কিছু গুলির খোসা এবং ৪০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করে।

ওসি আজমল হুদা ও এসআই অরুণ কুমার দাস জানান,লাশ তিনটি ভোররাত চারটা থেকে সাড়ে চারটার মধ্যে যশোর জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত ডাক্তার কল্লোল কুমার সাহা বলেন,‘হাসপাতালে আনার আগেই তিন জনেরই মৃত্যু হয়েছে। তাদের সবার মাথায় গুলি লেগেছে।’

যশোরে গাড়ি থেকে একজনের লাশ নামানো হচ্ছেচুয়াডাঙ্গা

চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার সন্ন্যাসীতলা মাঠে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে জনাব আলী (৩৩) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। রবিবার (২০ মে) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। জীবননগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদ রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নিহত জনাব আলী উপজেলার উথলী গ্রামের জামাত আলীর ছেলে। তার বিরুদ্ধে জীবননগর থানাসহ বিভিন্ন থানায় ১১টি মাদক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ওসি মাহমুদ রহমান জানান,জীবননগর থানার পুলিশের একটি দল রবিবার দেড়টার দিকে উপজেলার উথলী সড়কে টহল দেওয়ার সময় সন্ন্যাসীতলা মাঠের কাছে পৌঁছালে চোরাকারবারীরা পুলিশের জিপ লক্ষ করে গুলি চালায়। এসময় পুলিশও আত্মরক্ষার্থে গুলি ১০-১২ রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে। একপর্যায়ে চোরাকারবারীরা পিছু হটলে একজনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। পরে এলাকাবাসী জনাব আলীকে সনাক্ত করেন। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি শর্টগান,দু’টি কার্তুজ,৩টি রামদা এবং ১ বস্তা ফেনসিডিল উদ্ধার করে।

তিনি আরও জানান,এই ঘটনায় তিনজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। আহত পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঝিনাইদহে হাসপাতালে নিহত মাদক ব্যবসায়ী সব্দুল ইসলামের লাশঝিনাইদহ

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে সব্দুল ইসলাম নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। রবিবার (২০ মে) রাত আনুমানিক ২টার দিকে কালীগঞ্জ উপজেলার নরেন্দ্রপুর নামক স্থানে এই ঘটনা ঘটে। ঝিনাইদহের র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার এএসপি গোলাম মোর্শেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সে এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী।

তিনি জানান, রবিবার রাত আনুমানিক ২টার দিকে নরেন্দ্রপুর এলাকায় একটি টহল দায়িত্ব পালন করছিল। সেসময় ওই স্থান দিয়ে যাওয়া ২-৩ জনসহ একটি মোটরসাইকেলের গতিরোধ করলে তারা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। গোলাগুলি শেষে অন্যরা পালিয়ে গেলেও ঘটনাস্থলে সব্দুলের লাশ পড়ে থাকে। এসময় র‌্যাব ঘটনাস্থল থেকে একটি নাইন এমএম পিস্তল,দুই রাউন্ড গুলি,একটি ম্যাগাজিন,১০০ বোতল ফেন্সিডিল,১৫০ পিস ইয়াবা ও নগদ ১ হাজার ১০০ টাকা উদ্ধার করে।

টাঙ্গাইল

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার দেউলাবাড়ি এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে আবুল কালাম আজাদ নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। রবিবার (২০ মে) দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে। টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২ এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর রবিউল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,এ ঘটনায় দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন।

নিহত মাদক ব্যবসায়ী আবুল কালাম আজাদ ঘাটাইল উপজেলার দেউলাবাড়ি এলাকার বাসিন্দা।

কোম্পানি কমান্ডার মেজর রবিউল ইসলাম জানান,রবিবার দিবাগত রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় ঘাটাইল উপজেলার দেউলাবাড়ি এলাকার একটি ইট ভাটায় একদল মাদক ব্যবসায়ী মাদকদ্রব্য বিক্রির জন্য অপেক্ষা করছে। পরে সেখানে অভিযান চালালে মাদক ব্যবসায়ীরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। পরে র‌্যাব পাল্টা গুলি চালালে একজন মাদক ব্যবসায়ী গুলিবিদ্ধ হয় এবং বাকিরা পালিয়ে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়। ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল,৩ রাউন্ড গুলি,১শ’পিস ফেনসিডিল ও পনেরশ’ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান,নিহতের লাশ টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

যশোরে হাসপাতালে একজনের লাশ রাখা হয়েছেরাজশাহী

রাজশাহীতে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে লিয়াকত আলী নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। রবিবার (২০ মে) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে জেলার পুঠিয়া উপজেলার বেলপুকুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

র‌্যাব-৫ এর উপ-অধিনায়ক মেজর এএম আশরাফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, লিয়াকত পুঠিয়ার একজন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ছিলেন। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় আটটি মামলা রয়েছে।

তিনি জানান, রবিবার রাতে পুঠিয়ার বেলপুকুর এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গেলে মাদক ব্যবসায়ীরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। আত্মরক্ষার জন্য র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। পরে মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে গেলে লিয়াকত আলীকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। এ সময় লিয়াকতকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে তার মরদেহ রামেকের মর্গে রাখা হয়। ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।এ নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, বন্দুকযুদ্ধের পর ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি ও গুলির একটি খোসা জব্দ করা হয়েছে।

নরসিংদী

নরসিংদী জেলার ঘোড়াশাল পৌরসভার পলাশ থানায় র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ইমান আলী (৪৫) নামে এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছে। রবিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: