Jago Comilla

কুমিল্লার খবর সবার আগে

আর্দশ সদরকুমিল্লা উত্তর জেলাদেবিদ্বার

কুমিল্লায় নারীকে লাঠিপেটার ভিডিও ভাইরাল: র‌্যাব পুলিশের অভিযানে আটক ৪

দেবিদ্বার ও সিটি প্রতিনিধি:

কুমিল্লার দেবিদ্বারে ধর্ষণচেষ্টার মামলা না তোলায় প্রকাশ্যে এক নারীকে লাঠিপেটার ঘটনায় জড়িত তিনজনকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। শুক্রবার (২৬ আগস্ট) ভোর থেকে অভিযান চালিয়ে তাদের সদর উপজেলা থেকে আটক করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১১, সিপিসি-২ কুমিল্লা ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন।

আটককৃতরা হলেন দেবিদ্বার উপজেলার কুরছাপ গ্রামের মৃত আলী হোসেন মুন্সী ছেলে নুরুল ইসলাম (৬৮), মোস্তফা কামাল (৬১) ও একই গ্রামের কাউছারের স্ত্রী মোসা: নারগিছ (৩০) । পলাতক রয়েছে মামলার প্রধান আসামী মো. কাউছার আহম্মেদ এবং মো. হাসান এবং পুত্রবধু আনিকা । এদিকে দেবিদ্বার থানা পুলিশ এই মামলার আরেক আসামী কুলসুমকে আটক করেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে দেবিদ্বার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরিফুর রহমান বলেন, র‌্যাব ও পুলিশের যৌথ অভিযানে মামলার ৪ আসামীকে আটক হয় ।

অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, নারীকে লাঠিপেটার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে আমাদের নজরে আসে । মামলা দায়েরের পর থেকে তারা কুমিল্লা জেলার বিভিন্ন স্থানে পলাতক ছিল । অভিযান পরিচালনা করে হত্যা চেষ্টা মামলার পলাতক তিনজনকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া দেবিদ্বার থানা পুলিশে আরেক আসামীকে আটক করে ।

মামলার প্রধান আসামী মো. কাউছার আহম্মেদ বিদেশ পালিয়ে গেছেন কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব বলেন, প্রধান আসামী কাউছার বিদেশ চলে গিয়েছে এ ধরণের তথ্য আমার পেয়েছি। তবে তা নিশ্চিত নয় । আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে । আশা করি দ্রুত এই মামলার বাকি আসামীদেরও গ্রেফতার করা হযেছে।

উল্লেখ্য, কয়েক মাস আগে নির্যাতিত নারীর স্বামী জামাল উদ্দিন তার মেয়েকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে কুমিল্লার আদালতে হাসান নামের একজনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। অভিযুক্ত হাসান মেয়ের আপন চাচাতো ভাই। মামলার পর থেকে পারিবারিক দ্বন্দ্ব আরও বাড়তে থাকে।

গত ২০ আগস্ট এর জেরে দুই পক্ষের মধ্যে মারধরের ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে মো. হাসানের বড় ভাই কাউছার আহম্মেদসহ অন্য আসামিরা ভুক্তভোগী ওই কিশোরীর মাকে রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় প্রকাশ্যে লাঠিপেটা করেন। এ সময় কাউছারকে স্থানীয় কয়েকজন থামানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। এ ঘটনার ধারণ করা ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) রাতে দেবিদ্বার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগী নারীর স্বামী মো. জামাল হোসেন। এই মামলায় এখন পর্যন্ত ৪ জন আসামী গ্রেফতার হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *