রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:১০ পূর্বাহ্ন

আবু সুফিয়ান রাসেল।।


উৎসবমুখর আয়োজনে কুমিল্লা নগরীতে গণটিকা কার্যক্রম শুরু হয়েছে। নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডের ৩১টি কেন্দ্রে বৃষ্টি উপেক্ষা করে সকাল থেকে সাধারণ মানুষের উপছে পড়া ভিড় দেখা গেছে। প্রথম দিনে প্রায় ১৬ হাজার মানুষ বিনামূল্যে টিকা গ্রহণ করেছেন। শনিবার সকালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ উচ্চ মাধ্যমিক শাখায় টিকা দান কার্যক্রম উদ্বোধন করেন সদর আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার ও কুমিল্লা সিটি করপোরেশন মেয়র মো. মনিরুল হক সাক্কু। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নগরীর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. সফিকুল ইসলাম, ভিক্টোরিয়া কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. আবু জাফর খান, শিক্ষক পরিষদ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহজাহান। ১১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাবিবুর আল আমিন সাদী প্রমুখ। উদ্বোধন শেষে নগরীর বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন সংশ্লিষ্টরা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিক প্রচেষ্টায় আমরা বিনামূল্যে করোনা টিকা পাচ্ছি। সরকারি নিয়মে সবাই টিকা পাবেন। টিকা গ্রহণের পর যদি কারও সমস্যা হয় বা ব্যাথা করে স্বাস্থ্যকর্মীদের জানাবেন।

নগরীর ২১ নং ওয়ার্ডের সচিব মো. কাউছার জানান, সার্ভার জটিলতায় অনলাইনে নিবন্ধন ছাড়াই টিকা দেওয়া হয়েছে। টিকা গ্রহণকারী সকলের জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি ও মোবাইল ফোন নম্বর সংরক্ষণ করেছি। এ ওয়ার্ডে বিকাল সাড়ে চারটা পর্যন্ত দু’টি কেন্দ্রে ৫৮০ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে।

নগরীর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. সফিকুল ইসলাম জানান, প্রথম দিনে নগরীর ৩১টি কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ ভাবে প্রায় ১৬ হাজার টিকা প্রদান করা হয়েছে। রবিবার ও সোমবার গণটিকা কার্যক্রম চলবে। যাদের বয়স ২৫ ঊর্ধ্বে তারাই টিকা গ্রহণ করতে পারবে। ৫০ বছরের ঊর্ধ্বে যে সকল নাগরীক রয়েছে তাদের অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে।

মেয়র মো. মনিরুল হক সাক্কু জানান, যারা আজ (শনিবার) টিকা পায়নি। তারা আগামীকাল টিকা পাবে। টিকা নিয়ে চিন্তার কোন কারণ নেই। সবাই টিকা পাবে। আজ যে সকল ওয়ার্ডে জনবল সংকট ছিলো, অদক্ষ জনবল ছিলো তা সমাধান করা হয়েছে। আমরা আশা করি আগামী দুই দিন কাজে আরও গতি আসবে। নাগর বাসীদের মাঝে আরও উৎসাহ তৈরি হবে।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: