শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৪৪ অপরাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

কুমিল্লায় শ্বাসকষ্টসহ নানা রোগে আক্রান্ত গুরুতর অসুস্থ চাচা আব্দুল জলিলকে (৭৫) মাথায় করে হসপিটালে নিয়ে গেলেন ভাতিজা জয়নাল আবেদিন। প্রায় দেড় কিলোমিটার সড়ক হেঁটে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

বুধবার ( ৪ আগষ্ট) সকাল ১০ টায় কুমিল্লা মুরাদনগর ধামঘর ইউনিয়নের পরমতলা গ্রামের বেহাল রাস্তায় যানবাহন না পেয়ে টুকরিতে বসিয়ে মাথায় করে দেড় কিলোমিটার হেটে পরমতলা বাজার পর্যন্ত যায় । তারপর গাড়ি করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করানো হয়।

ভাতিজা জয়নাল আবেদীন বলেন, পরমতলা পশ্চিমপাড়া হাজি বাড়ি থেকে লক্ষ্মীপুর চরখখোলা হয়ে দারোরা বাজার পর্যন্ত আগে তিন চাকার যানবাহন চলতো। রাস্তায় বড় বড় গর্ত হওয়ায় তাও বন্ধ হয়ে যায়। আমার চাচা কয়েকদিন ধরে অসুস্থ হঠাৎ শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় কোন উপায় না পেয়ে মাথায় করে নিয়ে গেলাম। সরকারের কাছে অনুরোধ করে তিনি বলেন, আমাদের গ্রামের রাস্তাটা চলাচলের উপযোগী করার আহবান জানাচ্ছি।

মুগসাইর গ্রামের আব্দুস ছালাম মাস্টার বলেন, গর্ভবতী মায়েদের এবং বয়স্ক কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে স্বজনদের ঘুম হারাম হয়ে যায়। মসজিদের খাটিয়ায় করে এই দুর্ভোগের রাস্তা পাড়ি দিতে হয়। যাদের পরিবারে সদস্য সংখ্যা কম, তাদের আরো বেশি ভোগান্তিতে পড়তে হয়। কারণ লোক ভাড়া করে চিকিৎসার জন্য স্বজনদের হাসপাতালে নিতে হয়।

ধামঘর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল হাসেম বলেন, স্বর্ণকারবাজার হতে দারোরা বাজার পর্যন্ত রাস্তাটির বেহাল দশা। বৃষ্টি হলে এই সড়কে কোন যানবাহন চলাচল করতে পারে না। সকলের সহযোগিতায় ইট সুরকি ফেলে মেরামতের চেষ্টা করলেও কোন লাভ হচ্ছে না। ইঞ্জিনিয়ার সাহেব রাস্তাটি পরিদর্শন করে গেছেন। বার বার আশ্বাস দিলেও এই সড়কটি সংস্কারে কোন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে না।

মুরাদনগর এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর কবির বলেন, এ রাস্তাটি বৃহত্তর কুমিল্লা উন্নয়ন প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।রাস্তাটি দ্রুত বাস্তবায়ন করার কাজ এগিয়ে চলছে।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: