শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:৩১ অপরাহ্ন

(মো: নাজিম উদ্দিন, মুরাদনগর )

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ প্রায় ৪টি গ্রাম লন্ডভন্ড করে দিয়েছে আকস্মিক কালবৈশাখী ঝড়ে। এতে একটি উচ্চ বিদ্যালয়, একটি কিন্ডারাগার্ডেনসহ প্রায় দুই শতাধিক ঘরবাড়ী বিধ্বস্ত হয়েছে। এ সময় সহ¯্রাধিক গাছপালাও বিধ্বস্ত হয়। এ সময় আর্দশ এসআর উচ্চ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রায় ২০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়।বৃহস্পতিবার দুপুরে মুরাদনগর উপজেলা দিয়ে যাওয়া এক কালবৈশাখী ঝড় এ তান্ডব চালায়।

স্থানীয়রা জানায়, দুপুরে আকস্মিক ভাবে শুরু হওয়া কালবৈশাখী ঝড় মূহুর্তের মধ্যে বিধ্বংশী রুপ ধারন করে শুরু করে তান্ডব লীলা। উপজেলার হাটাশ, খোষঘর, হিরাপুর ও চাপিতলা গ্রামের প্রায় দুই শতাধিক ঘর-বাড়ী ও সহ¯্রাধিক গাছ-পালা বিধ্বস্ত হয়। এ সময় হাটাশ আদশ্য এসআর উচ্চ বিদ্যালয়ে ক্লাস চলা কালে ৫০ হাত লম্বা একটি স্কুল ঘর ও খোষঘর আইডিয়েল কিন্ডারগার্ডেন স্কুলটি সম্পূর্ণ ভাবে বিধ্বস্থ হয়।

খোষঘর গ্রামের রানা মিয়া, নাছির উদ্দিন, হিরাপুর গ্রামের ইব্রাহীম, মোমেন, চাপিতলা গ্রামের ইকবাল হোসেনসহ আরো অনেকের বসত-ঘর সম্পূর্ণ ভাবে বিধ্বস্ত হয়।

এ ব্যাপারে হাটাশ আর্দশ এসআর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: মোতালেব মিয়া জানান, স্কুল চলাকালে হঠাৎ করে কালবৈশাখী ঝরের আঘাতে বিদ্যালয়ের একটি স্কুল ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। এ সময় প্রায় ২০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। আহতের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ঘটনাটি কতৃপক্ষকে লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিতু মরিয়ম বলেন, কাল বৈশাখী ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত বিদ্যালয় দ্রুত মেরামতের জন্য অনুদানের মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। আতংকে দৌড়া-দৌড়ির কারনে শিক্ষার্থীরা আহত হয়েছে। কোন শিক্ষাথীর্র বড় ধরনের কোন ক্ষতি হয়নি।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: