শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০৫:৪৭ পূর্বাহ্ন

(আক্কাস আল মাহমুদ হৃদয়, বুড়িচং )

বুড়িচংয়ে অর্থ ও সম্পদের লোভে ৯দিন বাবাকে আটক রেখে নির্যাতন করার অভিযোগ পাওয়া যায়।  মঙ্গলবার সকালে তাকে উদ্ধার করে প্রতিবেশীরা বুড়িচং স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে এবং সংবাদ পেয়ে বুড়িচং থানার দেবপুর ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান।

চিকিৎসাধীন উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের কিং বাজেহুরা গ্রামের মৃত তৈয়ব আলীর ছেলে নির্যাতিত নাজির আহম্মেদ (৭৬) বলেন, ২০ লাখ টাকা এবং সম্পত্তি ভাগবানোয়াট করে দেওয়ার জন্য ছেলে আবু জাফর কানু, জসিম উদ্দিন, জামসেদ আলম ও তার পুত্রবধু সহ দীর্ঘদিন ধরে আমাকে মানসিক ও শারীরিকভাবে নির্যাতন করে আসছে।

জামসেদ ও জসিম জোর করে ৭২ শতক জমি দলিল করে নিয়ে যায়। এব্যাপারে গ্রামবাসী কয়েকবার শালিশে বসে মিমাংসা করলেও ছেলেরা পরিবর্তন হয়নি। তাই বাধ্য হয়ে ছেলেদের বিরুদ্ধে কুমিল্লা কোর্টে একটি মামলা করেন । মামলার ভয়ে দুই পুত্র জসিম এবং জামসেদ দেশের বাইরে চলে গিয়েও সম্পত্তির লোভে বড় ভাই আবু জাফর কানু ও তাদের স্ত্রীদের দিয়ে শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে আসছে।

গত ৯দিন যাবৎ ঘরের আটকিয়ে রেখে সম্পত্তি ও ব্যাংকে ডিপিএস এর ২০ লাখ টাকা তাদেরকে দেওয়ার জন্য কয়েকবার প্রাণনাশের চেষ্টা চালায়। ৮ মে মঙ্গলবার সকালে তার চিৎকারে প্রতিবেশী ও স্থানীয় ইউপি মেম্বার শিপন ও ডাক্তার দেলোয়ার হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

সংবাদ পেয়ে বুড়িচং থানার দেবপুর ফাঁড়ির এসআই আল আমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান। এই ব্যাপারে বুড়িচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনোজ কুমার দে জানান, এ বিষয়টি যেনে পুলিশ পাঠিয়েছি এবং অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করিব।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: