শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:১৭ অপরাহ্ন

অমিত মজুমদার, কুমিল্লা

কুমিল্লায় নরমাল ডেলিভারীতে একসঙ্গে চার শিশুর জন্ম দিয়েছে সাদিয়া আক্তার নামে এক প্রসূতি । মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) বিকাল ৩ টায় কুমিল্লা নগরীর গোমতী হসপিটালে গাইনী সার্জন ডাঃ শাহিদা আক্তার রাখির তত্ত্বাবধায়নে নরমাল ডেলিভারী করানো হয় ।

জন্ম নেওয়া চার সন্তানের মধ্যে দুইজন ছেলে ও দুইজন মেয়ে শিশু রয়েছে। তারা বর্তমানে কুমিল্লা মর্ডান হসপিটাল নবজাতক নিবিড় পরিচর্যা ইউনিট (এনআইসিইউ) সুস্থ আছেন। তবে এখনও বিপদ মুক্ত নয় । এই চার শিশুর মা হলেন কুমিল্লা সদর দক্ষিণের সুয়াগাজী লালবাগ এলাকার জিল্লুর রহমানের স্ত্রী সাদিয়া আক্তার।

সাদিয়া আক্তারের স্বামী জিল্লুর রহমান জানান, বর্তমানে হসপিটালে নিয়ে গেলেই সিজার করিয়ে ফেলে । তবে ডাঃ শাহিদা আক্তার রাখি আমার স্ত্রীকে চেকআপ করিয়ে বলছে বাচ্চাগুলোর পজিশন ঠিক আছে। তিনি নরমাল ডেলিভারী করার জন্য বললে আমরাও রাজি হয়ে যাই । আল্লাহর রহমতে কোন সমস্যা ছাড়াই ৪ সন্তানের বাবা হলাম । এনআইসিইউ ৪ টি শিশুই সুস্থ আছে। ডাক্তার রাখি ম্যাডামকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি । আমি সকলের নিকট দোয়া কামনা করছি। আমার ৪ বছরের একটি মেয়ে সন্তান আছে ।

গাইনী সার্জন ডাঃ শাহিদা আক্তার রাখি বলেন, নরমাল ডেলিভারীতে ৪ শিশুর জন্ম হওয়ায় আমি খুবই খুশি । প্রসূতি সাদিয়া আক্তার ও সুস্থ্য আছে । কোন রকম সিজার ছাড়াই নরমাল ডেলিভারীতে চার শিশুর জন্মের ঘটনা কুমিল্লায় এর আগে ঘটেছে কিনা শুনেনি । তার আগে আমি একসঙ্গে তিন শিশুর নরমাল ডেলেভারী করেছি। আমি নিয়মিত তাদের খোঁজ খরব রাখছি । চারশিশুর মধ্যে ১ম জনের ওজন প্রায় ১১০০ গ্রাম, ২য় জনের প্রায় ১০০০ গ্রাম, ৩য় জনের ওজন প্রায় ৯০০গ্রাম, আর ৪র্থ জনের ওজন প্রায় ৮০০ গ্রাম।

গাইনী সার্জন ডাঃ শাহিদা আক্তার রাখির তত্ত্বাবধায়নে নরমাল ডেলিভারী করানো হয়

তিনি আরও বলেন, অনেক রোগী অভিযোগ করে বলেন হসপিটালে গেলে সিজার করানো হয়। সেই ধারণাটা ভুল । আমরা চেকআপ করে বাচ্চার অবস্থা ভাল থাকলে প্রসূতিকে রিস্ক বেনিফিট কাউন্সেলিং করি । তখন প্রসূতি মানসিক ভাবে প্রস্তুত থাকলে নরমাল ডেলিভারিই করা হয় । নরমাল ডেলিভারীতে কিছু সময় ঝুঁকি থাকে । তবুও সব কিছু ঠিক থাকলে নরমাল ডেলেভিরী করার চেষ্টা করি ।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: