শুক্রবার, ০১ Jul ২০২২, ০৫:২১ অপরাহ্ন

আব্দুল্লাহ আল মারুফ:

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিবন্ধনহীন বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারসহ স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রগুলো ৭২ ঘণ্টার মধ্যে বন্ধের নির্দেশের পর কুমিল্লায় অবৈধ ক্লিনিক ও হাসপাতাল বন্ধে মাঠে নেমেছে প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ।

গত পরশু থেকে চলা অভিযানে এখন পর্যন্ত ৪৫টি অবৈধ ক্লিনিক ও হাসপাতাল বন্ধ করা হয়েছে। রোববার (২৯ মে) সন্ধ্যায় এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. মীর মোবারক হোসেন।

তিনি বলেন, কুমিল্লা জেলায় ৪০৪টি বৈধ হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ডেন্টাল হাসপাতাল ও ব্লাড ট্রান্সফিউশন সেন্টার রয়েছে। এদের মধ্যে ১৮৪ টি হাসপাতাল, ২০৬ টি ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ১২ টি ডেন্টাল হাসপাতাল ও ২টি ব্লাড ট্রান্সফিউশন সেন্টার।

কুমিল্লা শহরসহ ১৭ টি উপজেলার যেসব ক্লিনিক বা ডায়াগনস্টিকের লাইসেন্স নেই এমন ৪৫ টি প্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হয়েছে। এছাড়া এখনও যাদের লাইসেন্স নেই তিন দিনের মধ্যে সেগুলো বন্ধ করা না হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অবৈধ ক্লিনিক, হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধে সরকার কঠোর অবস্থানে রয়েছে। এ ব্যাপারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীরও স্পষ্ট নির্দেশনা রয়েছে। এমন অভিযান চলমান থাকবে।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: