শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:০৫ অপরাহ্ন

(মাহফুজ বাবু,কুমিল্লা)

আগামীকাল ঈদ নতুন জামা কিনে দিয়েছে বাবা। খুশিতে আত্মহারা নাজিরা বাজার হাফেজিয়া মাদ্রাসার ছোট শিশু জিহাদ (৬)। অন্য সব শিশুদের মতই জিহাদ ও ঈদের আগমনে ব্যাস্ত তার খুদে বন্ধু মহলের সাথে। সবাই কে বলেছে ঈদের নতুন জামা গায়ে দিয়ে ঘুরবে সারাদিন। কিন্তু নিয়তির এ কেমন নিষ্ঠুরতা! মহাসড়কে দ্রুতগতির ঘাতক মাইক্রোবাস কেড়ে নিলো শিশু জিহাদের প্রাণ।

কুমিল্লার ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের বুড়িচংয়ের নাজিরা বাজার এলাকায় শুক্রবার বিকেল সারে ৪টায় ঘটে এ দুর্ঘটনা। মহাসড়ক সংলগ্ন নাজিরা বাজার অলিপুর রোডের মাথায় হোটেল ব্যবসায়ী জাকির হোসেনের ছেলে জিহাদ। বাবার দোকান থেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে মহাসড়ক পাড়ি দিতে যাচ্ছিলো জিহাদ। দৌড়ে রাস্তা পেরুনোর সময় ঢাকাগামী একটি সাদা মাইক্রোবাস চাপা দেয় জিহাদ কে। গাড়ীর চাকার নিচে পরে মাথায় গুরুতর আঘাতে রক্তাক্ত হয় হয় শিশুটি। বাবার দোকানের সামনেই ঘটে ঘটনাটি। ঘটনাস্থলে উপস্থিত আটো চালক এবং দোকানদাররা দৌড়ে আসে সাথে সাথে।

ততক্ষণে স্পিড বাড়িয় পালিয়ে যায় ঘাতক মাইক্রোবাসটি। শিশুটির পিতা জাকির হোসেন সহ কয়েকজন দ্রুত জিহাদকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় ক্যান্টনমেন্ট ময়নামতি জেনারেল হাসপাতালে। বিধি বাম, ডাক্তার জানায় মাথায় প্রচন্ড আঘাত আর প্রচুর রক্তক্ষরণে কিছুক্ষণ আগেই জিহাদ চলে গেছে না ফেরার দেশে। নির্বাক পিতা জাকির হোসেন, পৃথিবীতে সবচেয়ে ভারী বোঝা সন্তানের লাশ কোলে নিয়ে হারিয়ে ফেলে চিৎকার দেয়ার ক্ষমতা । খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন ছুটে যায় হাসপাতালে। শিশু জিহাদের লাশ নিয়ে আসা হয় বাড়িতে ।

ঘোষনগর গ্রমের নাজিরা বাজার এলাকার মুকুল মিয়ার ছেলে জাকির হোসেনের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, বোবা হয়ে বসে আছে শিশু জিহাদের পাশে। দাদা, দাদী, ফুপু, চাচা, চাচাত ভাই বোন সবাই শোকে কাতর কেউ কেউ কাঁদছে বুক চাপড়ে । পরিবারের সকলের বিলাপকরা কান্নায় আশেপাশের পরিবেশ যেন ভারী হয়ে উঠেছে। ঘাতক মাইক্রোবাসটিকে আটক করা সম্ভব হয় নি।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: