মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০১:০৮ পূর্বাহ্ন

days 27 hours 22 minutes 52 seconds 02

( জাগো কুমিল্লা. কম)

কুমিল্লার লালমাইয়ে ভ্রাম্যমাণ দোকানের চটপটি-ফুচকা খেয়ে ৩০ জনের বেশি স্কুল শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়েছে। শনিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) উপজেলার শাকেরা আর এ উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। অসুস্থ ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে ২৬ জনকে লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বাকিদের অন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।স্কুল সূত্র জানায়, আজ (শনিবার) সকালে স্কুল আঙ্গিনায় বসা ভ্রাম্যমাণ দোকান থেকে চটপটি-ফুচকা খায় শিক্ষার্থীরা। পরে ক্লাস শুরু হওয়ার পর একে একে অসুস্থ হতে শুরু করে। এর মধ্যে ষষ্ঠ শ্রেণির পাঁচজন, সপ্তম শ্রেণির ১৫ জন, নবম শ্রেণির দুইজন এবং দশম শ্রেণির চার জন রয়েছে। প্রথমে তাদের স্থানীয় ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পরে লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় চার চটপটি দোকানদেরকে আটক করা হয়েছে। তারা হলেন– লাল উপজেলার জালগাঁও গ্রামের মৃত রুস্তম আলীর ছেলে আবুল হাসেম (৪০), সদর দক্ষিণ উপজেলার কলোমিয়া গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে আব্দুল হক (৩০), মনোহরগঞ্জ উপজেলার পোমগাঁও গ্রামের সোলেমান মিয়ার ছেলে ইসমাইল হোসেন (২৫), কোতোয়ালী থানার দুলাল মিয়ার ছেলে রাব্বি (২০)।

শাকেরা আর এ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আহমদ উল্লাহ বলেন, ‘সকালে হঠাৎ কয়েকজন ছাত্রী বমি করতে শুরু করে। একে একে আরও কয়েকজন অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে স্থানীয় ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাদের লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।’

লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আব্দুল আলী বলেন, ‘খালি পেটে বাসি খাবার খাওয়ায় এমনটি হতে পারে।’

লালমাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার কে. এম ইয়াসির আরাফাত বলেন, ‘চটপটি দোকানিদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। অসুস্থদের লাকসাম ও কুমিল্লার হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। অসুস্থ শিক্ষার্থীরা বর্তমানে আশঙ্কামুক্ত।’

আরও পড়ুন