মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১২:০৩ পূর্বাহ্ন

days 27 hours 23 minutes 57 seconds 27
মিসকল থেকে পরকীয়া শুরু, হত্যায় সমাপ্তি

অনলাইন ডেস্ক:
কুমিল্লার লাকসামে মহসিমা আক্তার সুমি (২৮) নামে এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর মৃ তদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ রবিবার বাড়ির পাশে একটি পুকুর থেকে ওই গৃহবধূর মৃ তদেহটি উদ্ধার করা হয়। তিনি উপজেলার কান্দিরপাড় ইউনিয়নের সিংজোড় গ্রামের বেড়িবাঁধ এলাকার আবদুল মুনাবের ছেলে মো. রাব্বির স্ত্রী।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বিকেলে সুমি তার স্বামীর সঙ্গে বাবার বাড়ি দেবপুর থেকে শ্বশুর বাড়ি সিংজোড়ে আসেন। অন্যান্য দিনের মতো রাতের খাবার খেয়ে তারা স্বামী-স্ত্রী ঘুমিয়ে পড়েন। সকাল ৬টার দিকে ঘুম থেকে উঠে তার স্ত্রীকে পাশে না পেয়ে বাড়িতে এবং আশপাশে খোঁজাখুজি করেন। কিন্তু কোথাও না পেয়ে সকাল পৌনে ৮টার দিকে বাড়ির পাশের একটি পুকুরে পানিতে ডুবে থাকা ওই গৃহবধূর মৃ তদেহের সন্ধান মেলে।

সংবাদ পেয়ে লাকসাম থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই গৃহবধূর মৃ তদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। তবে ময়নাতদন্ত ছাড়াই স্বজনদের কাছে মৃ তদেহ হস্তান্তর করে পুলিশ।

গৃহবধূর স্বামী রাব্বি জানান, প্রায় ৬ বছর আগে পার্শ্ববর্তী মনোহরগঞ্জ উপজেলার ঝলম (উত্তর) ইউনিয়নের দেবপুর গ্রামের রুহুল আমিনের মেয়ের সঙ্গে সামাজিকভাবে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর সুখেই কাটছিল তাদের দাম্পত্য জীবন। পারিবারিক জীবনে কখনো তাদের মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ হয়নি। তাদের ৪ বছর বয়সী একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। বর্তমানে তার স্ত্রী অ ন্তঃসত্ত্বা। চিকিৎসকের মতে ২/৩ দিন পর সন্তান প্রসবের কথা রয়েছে। কিভাবে কী ঘটে গেল বুঝতে পারছি না।

এ ব্যাপারে লাকসাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নিহত গৃহবধূর মৃ ত্যুতে কোনো পক্ষের অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই স্বজনদের কাছে মৃ তদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

জ্বলে উঠেছে বাংলাদেশ; ‍ প্রথম ওভারেই আউট রোহিত

অনলাইন ডেস্ক:
তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে টসে জিতে দিল্লি স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে বল করতে নামে বাংলাদেশ। প্রথম ওভার করতে এসেছিলেন শফিউল ইসলাম। প্রথম বলেই ফাইন লেগ দিয়ে বল সীমানা ছাড়া করেন রোহিত শর্মা। শফিউলের প্রথম ওভার থেকে বের হয় ১০ রান। কিন্তু শেষ বলে এলবিডব্লিউ হওয়ায় রিভিউ নেন রোহিত, থার্ড আম্পায়ার ফিল্ড আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত বহাল রাখেন।

বাংলাদেশ একাদশ: সৌম্য সরকার, লিটন দাস, নাঈম শেখ, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন, আমিনুল ইসলাম, শফিউল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান, আল আমিন হোসেন।

ভারতীয় একাদশ: রোহিত শর্মা (অধিনায়ক), শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, শ্রেয়স আইয়ার, ঋষভ পান্থ, শিবম দুবে, ক্রুণাল পান্ডিয়া, ওয়াশিংটন সুন্দর, দীপক চাহার, যুজভেন্দ্র চাহাল ও খলিল আহমেদ।

আরও পড়ুন