মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০২:২৩ অপরাহ্ন

তিতাস(কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ


কুমিল্লার তিতাস উপজেলার ভিটিকান্দি ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও সাবেক চেয়ারম্যান সমর্থকদের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে সাবেক চেয়ারম্যান আবুল হোসেন মোল্লার ছেলে জহির মারা গেছেন। এসময় পুলিশসহ উভয় পক্ষের অন্তত ১৫ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া সাবেক মেম্বারের বিল্ডিং এ অগ্নিসংযোগেরও ঘটনাও ঘটেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪ টায় উক্ত ইউনিয়নের মানিককান্দি গ্রামে।

আহতদেরকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেছে। এবং অবস্থা গুরুতর হওয়ায় ঢাকা নেওয়ার পথে জহির উদ্দিন (৩৮) মারা যান।

আহতরা হলেন উপপরিদর্শক (এস আই) মাহমুদুর রহমান, বর্তমান চেয়ারম্যান বাবুল আহম্মেদ এর সমর্থক হোসেন মিয়া ও মনির হোসেন। প্রাথমিকভাবে এই তিন জনের নাম জানা গেছে।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায় বর্তমান চেয়ারম্যান বাবুল আহম্মেদ ও সাবেক চেয়ারম্যান আবুল হোসেন মোল্লার সমর্থকরা এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এই সংঘর্ষ। এলাকাবাসী আরও বলেন, সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনা স্থলে আসলে সাবেক চেয়ারম্যান আবুল হোসেন মোল্লার গ্রুপের লোকজন পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল ছুড়ে এবং একজন পুলিশকে নিয়ে টানা হেচরা করতে এলাকাবাসী দেখেছেন,এসময় একজন পুলিশ রক্তাক্ত আহত হয়।

পড়ে আহত পুলিশকে নিয়ে অন্য পুলিশ সদস্যরা চলে গেলে বর্তমান চেয়ারম্যান বাবুল আহম্মেদ এর সমর্থক সাবেক মেম্বার সাইফুল মিয়ার বিল্ডিংএ অগ্নিসংযোগ করে সাবেক চেয়ারম্যান আবুল হোসেন মোল্লার লোকজন।

বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত আছে এবং ঘটনা স্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের টিম লিডার রাসেল বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে পৌছতে সন্ধ্যা ছয় টায় এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই।

এবিষয়ে তিতাস থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সূধীন চন্দ্র দাস বলেন, আবু মোল্লা গ্রুপ ও সাইফুল মেম্বার গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে হামলা মামলা চলে আসছিল,তারই জের ধরে আজকের সংর্ঘষ।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: