রবিবার, ৩১ মে ২০২০, ০১:৪০ পূর্বাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার ২নং আকুবপুর ইউনিয়নের বলীঘর গ্রামের রায়হান সরকার রাফি (২০) নামে এক যুবকের মৃ ত্যুতে এলাকায় করোনা আ তংক বিরাজ করছে। বুধবার দুপুরে পাশ্ববর্তী নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাঁর মৃ ত্যু হয়।

হাসপাতাল সূত্রে জানাযায়, জ্বর, শ্বাসক ষ্ট ও কাশি এবং পায়ের সমস্যা নিয়ে বুধবার দুপুর ২টার দিকে চিকিৎসা নিতে নবীনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যায়। কিন্তু ভর্তি হওয়ার আগেই তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ডাক্তার দ্রুত তাকে ঢাকায় পাঠানোর পরামর্শ দেন। কিন্তু গাড়িতে তোলার আগেই সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে মা রা যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃ ত ঘোষণা করেন।

মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানাধীন বলিঘর গ্রামের মোঃ মোখলেসুর রহমানের ২য় ছেলে রায়হান সরকার রাফি শ্রীকাইল সরকারি কলেজ থেকে এবছর এইচ এস সি পরীক্ষার্থী ছিলেন। এই মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে নবীনগর হাসপাতালসহ ও নিহতের নিজ গ্রামে সর্বত্র করোনা ভাইরাসের আ তঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।


বাঙ্গরা বাজার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, করোনার উপসর্গ নিয়ে যুবকের মৃ ত্যু সংবাদ পাওয়া মাত্র আমরা ঐ বাড়ীর আশে-পাশের বাড়ী সমূহ লকডাউন করে রেখেছি। পরিবারের লোকজনের সাথে কথা বলে জানাযায় নিহ ত রায়হান দীর্গদিন ধরে শ্বাসকষ্ট এজমা জনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। গত ৬দিন পূর্বে তাঁর পা ভে ঙ্গে যায়। তবে ঢাকা থেকে রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত অতিরিক্ত সতর্কতার জন্য লকডাউন করে রাখা হয়েছে। বলীঘর গ্রামের করবস্থানে লা শ দাফনের প্রস্তুতি চলছে।

নিহতের পিতা মোখলেছুর রহমান জানান, তার বড় ছেলে সৌদি আরবে থাকেন। বাড়ীতে কোন প্রবাসী আসে নাই এবং রায়হানও কোথাও যায়নি। সে কয়েক বছর ধরে শ্বাসকষ্ট জনিত নিউমিনিয়া রোগে অ সুস্থ ছিল। বছর খানেক আগেও ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হসপিটাল থেকে চিকিৎসা করানো হয়। গত ৬দিন পূর্বে রায়হান কাজ করতে গিয়ে বাম পা ভেঙ্গে ফেলে। গ্রামের ডাক্তার দ্বারা পায়ের প্লাস্টার করা হয়। কিন্তু পায়ের প্লাস্টার সমস্যা দেখা দেয় ও ইনফেকশন হওয়াতে রায়হান ব্যাথায় কাতর হয়ে পারেন। মূলত পায়ের সমস্যা নিয়ে নবীনগের সরকারি হসপিটালে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।
নবীনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) ডা. মোশরাত ফারখান্দা জেবিন বলেন, যুবকটি করোনায় আক্রান্ত ছিলো কি না আমরা এই মুহূর্তে বলতে পারবো না। তবে করোনা ভাইরাসের একাদিক উপসর্গ তাঁর মাঝে লক্ষ করেছি। বিশেষ করে শ্বা সকষ্ট ও জ্ব র ছিল। তাই তার করোনা পরীক্ষার জন্য সব নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় প্রেরন করা হয়েছে। রির্পোর্ট পাওয়ার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে মৃ ত্যুর প্রকৃত কারন।

আরও পড়ুন