শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:২৭ অপরাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

কুমিল্লার বুড়িচংয়ে ভৈরবপুরে পাওনা টাকার জন্য স্কুল শিক্ষার্থীকে গাছের সাথে বেঁধে রেখে নির্যাতনের ঘটনায় ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাটি পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন মঙ্গলবার ঘটলেও সম্প্রতি গাছে বেঁধে রাখার ছবিটি সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

আটকৃতরা হলেন, মোঃ নাহিদুল ইসলাম (২০), মোঃ নাজমুল হোসেন (২৩) ও জসিমউদ্দিন (২৭)। শনিবার (৭মে) সকাল ১০ টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছে কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোহান সরকার।

তিনি জানান, ঘটনাটি কুমিল্লা পুলিশ সুপার স্যারের নজরে আসার দুই ঘন্টার মধ্যে ঘটনার সাথে জড়িত তিনজন জানকে আটক করা হয়েছে।তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

ভুক্তভোগী স্কুল শিক্ষার্থী সাহেদ হোসেন শান্তের পিতা ইউসুফ মিয়া বলেন, কিছুদিন আগে পাশের গ্রাম ভৈরবপুর এলাকার দুলু মিয়ার ছেলে নাহিদুলের দোকান থেকে একটি খাট বানিয়েছিলেন। প্রায় সব টাকা দেয়া হয়ে গেছে খাটের। আর ৪৫০ টাকা বকেয়া থাকার কারণে ঈদের কয়েকদিন আগে নাহিদুল আমার বাড়িতে এসে টাকার জন্য গালমন্দ করে, এসময় তাকে অনুনয় করে জানায় ইউসুফের ছোট ছেলেটা কয়েকদিন আগে পানিতে ডুবে মারা গেছে কাজ করতে পারে নাই হাতে খালি। সপ্তাহ খানেক পরে দিয়ে দেব। তবুও সে এটা নিয়ে বাড়াবাড়ি করে আমার গায়ে হাত তোলে এ নিয়ে বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতি হয় তার সাথে।

ঈদের দিন আমার ছেলে শান্ত বন্ধুদের সাথে ঘুরতে বের হলে তাকে তার বন্ধুদের সামনে থেকে অস্ত্র ঠেকিয়ে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যায় নাহিদুলসহ আরও কয়েকজন। নাজমুল তার বাড়িতে নিয়ে গাছের সাথে বেঁধে রেখে মারধর করে। এসময় আমি বাইরে কাজে ছিলাম খবর পেয়ে বাড়িতে এসে থানায় ফোন দেই। পরে স্থানীয় ইউপি সচিব ও গ্রাম পুলিশ সেখান থেকে আমার ছেলে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। এই ঘটনায় শুক্রবার (৬ মে) রাতে বুড়িচং থানায় মামলা দায়ের পর তাদের আটক করা হয়েছে। কুমিল্লা জেলা পুলিশকে ধন্যবাদ জানাই।তাদের উপযুক্ত শাস্তি দাবি করছি।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: