বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০, ০২:৫৭ পূর্বাহ্ন

(মোঃ ফখরুল ইসলাম সাগর, দেবিদ্বার)

কুমিল্লার দেবিদ্বারে ইমাম কর্তৃক ৩য় শ্রেণীতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রী’কে যৌনপীড়নের অভিযোগে বরকামতা উত্তরপাড়া এলাকার কেন্দ্রিয় জামে মসজিদের ইমাম মোঃ নুরুল ইসলাম হুজুর (৩০) কে গ্রেপ্তার করেছে দেবিদ্বার থানা পুলিশ। সে চান্দিনা থানার নলপুনি গ্রামের ধনু মিয়ার ছেলে । ওই ঘটনায় এলাকায় নানা গুঞ্জন সৃষ্টি হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বরকামতা ইউনিয়নের উত্তরপাড়া গ্রামের মেহেদী হাসানের ভাগ্নি ৩য় শ্রেণীতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রী(ছদ্দ নাম নীলিমা) শনিবার সকালে সাড়ে ৬টায় কেন্দ্রিয় জামে মসজিদে আরবী পড়তে যায়।

পরে ওই হুজুর ভিকটিম’কে ডেকে তার পাশে বসিয়ে নিজের যৌন কামনা মিঠানোর জন্য ভিকটিমের বুকের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়া ক্রমাগত জোরে জোরে চাপ দেয় এতে ভিকটিমের বুকে রক্ত জমাটের কারণে কালচে দাগ তৈরি হয়। ভিকটিম বাড়ী ফিরে ব্যথার কথা আপন জনদের জানালে তাকে দেবিদ্বার সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়।

এই ঘটনায় ভিকটিমের মামা মেহেদী হাসান বাদি হয়ে ওই লম্পট মসজিদের ইমামের বিরুদ্ধে যৌনপীড়নের অভিযোগ এনে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দেবিদ্বার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দেবিদ্বার থানার উপরিদর্শক(এসআই) মোঃ মোরশেদ আলম রবিবার সকালে একদল পুলিশ ফোর্স নিয়ে আসামী ওই লম্পট ইমাম মোঃ নুরুল ইসলাম হুজুরকে গ্রেপ্তার পূর্বক আদালতে সোপর্দ করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে আসামী অকপটে তার অপকর্মের কাহিনী বিজ্ঞ আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রোকেয়া বেগমের আদালতে কাঃবিঃ ১৬৪ ধারায় দোষ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে। পরে তাকে আদালতের নির্দেশে তাকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়।

আরও পড়ুন