মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১২:৪৬ পূর্বাহ্ন

days 27 hours 23 minutes 14 seconds 49

আকিবুল ইসলাম হারেছঃ

“পুলিশই জনতা,জনতাই পুলিশ”এ কথাটি কাগজে কলমে থাকলেও সচরাচর এমনটা হয় না। তবে এমনই একটি ঘটনা ঘটিয়েছেন কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাজি ইয়াসিন অভি।

সোমবার (২০ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় কুমিল্লার চান্দিনা থেকে বিশেষ কাজে রাজধানী ঢাকা যাওয়ার পথে এমনি এক সাহসী ঘটনার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন তিনি।

কি হয়েছিল সোমবার বিকেলে?জানতে চাইলে ছাত্রলীগ নেতা অভি মুঠোফোনে জানান,সোমবার বিকেলের দিকে ঢাকা যাওয়ার উদ্দেশ্যে ঢাকাগামী শ্যামলী পরিবহনের বাসে ওঠেন চান্দিনা উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি কাজী ইয়াসিন অভি। কক্সবাজার থেকে আসা শ্যামলী পরিবহনের বাসটিতে খুব বেশী যাত্রী ছিলো না, পেছনের দিকের বেশ কিছু সিট খালি থাকায় বসে হেডফোনে গান শুনছিলেন তিনি। বাসটি মেঘনা ব্রিজ অতিক্রম করার পর তার অপর দিকের সামনে বসা এক যাত্রী বারবার এদিক সেদিক তাকিয়ে সিটের নিচে হাত দিচ্ছিলেন।

লোকটির আচরণ সন্দেহ জনক হওয়ায় গভীরভাবে লোকটিকে পর্যবেক্ষণ করতে থাকেন অভি। বাসটি কাঁচপুর ব্রিজের কাছে এলে একটি প্যাকেট সিটের নিচ থেকে বের করে প্যান্টের ভেতরে ঢোকানোর সময় অভি নিজের সিট ছেড়ে উঠে হাত চেপে ধরেন লোকটির। প্যাকেটে কি আছে জানতে চাইলে উত্তেজিত হয়ে জানায় টাকা আছে। দেখতে চাইলে উল্টো তার পরিচয় জানতে চায় লোকটি। তবে কিছুতেই প্যাকেট দেখাতে রাজি হচ্ছিলনা লোকটি। এক পর্যায়ে জোর করেই প্যাকেটটি তার হাত থেকে নিলে লোকটি গাড়ি থেকে পালানোর চেষ্টা করে। ব্যর্থ হয়ে বিভিন্ন ভাবে মোটা অংকের টাকার প্রলোভন ও নানা প্রস্তাবও দেয় অভী’কে। ব্যর্থ হয়ে হাতে পায়ে ধরে মিনতি শুরু করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,প্যাকেট খুলে দেয়া যায় প্যাকেট ভর্তি ইয়াবা!গাড়ির সুপারভাইজার ও অপর এক যাত্রীর সহযোগিতায় একটি পুরোনো কাপড় দিয়ে ইয়াবা পাচারকারী যাত্রীটির হাত বেঁধে ফেলেন ওই ভদ্র লোকটি।পরে আমরা জানতে পারি ভদ্রলোক চান্দিনা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি।

পরে যাত্রাবাড়ী এলে গাড়ি থেকে নামিয়ে ইয়াবা সহ মাদক পাচারকারীকে টেনে নিয়ে হাজির হন যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কক্ষে। বিস্তারিত খুলে বলা হলে সত্যতা স্বীকার করে কক্সবাজারের বাসিন্দা মাদক কারবারি লোকটি। গণনা করে দেখা যায় ৩ হাজার পিছ ইয়াবা রয়েছে সেখানে। যার আনুমানিক মূল্য ৯০ হাজার টাকা।

ঘটনার সত্যতা জানতে যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি জানান, চান্দিনা উপজেলা ছাত্রলীগ নেতার এমন সাহসী ভূমিকা সত্যিই প্রশংসনীয়।প্রতিটি নাগরিক এমন সচেতন ও সৎ সাহসী হলে শুধু মাদক নয় সকল অপরাধই কমে যাবে দেশে। ৩ হাজার পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তারকৃত মাদক পাচারকারীর বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন