মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০১:৫৮ পূর্বাহ্ন

days 27 hours 22 minutes 02 seconds 59

স্টাফ রিপোর্টার।।
কুমিল্লায় এক যুবকের হাত পা বেঁ’ধে মায়ের সামনে নির্যাতন করেছেন আবু তাহের নামের এক ব্যক্তি। ঘটনাটি ঘটেছে কুমিল্লার মুরাদনগন উপজেলার দারোরা ইউনিয়নের কাজিয়াতল গ্রামের পূর্বপাড়ায়।
নি’র্যাতনের শিকার যুবক ওই গ্রামের রাখাল চন্দ্রের ছেলে রাজু চন্দ্র। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) রাজুর বড় ভাই সজল চন্দ্র বিশ্বাস মুরাদনগর থানায় আবু তাহেরকে আসামি করে একটি মা’মলা দায়ের করেছেন।
অভিযু’ক্ত আবু তাহের দারোরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এবং ইসলামী শাসনত’ন্ত্র আন্দোলনের বর্তমান আমির বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার বিকেলে রাজু চন্দ্রকে মা’রধ’র শুরু করেন আবু তাহের। যুবকের মা বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলেও রাজুর হাত পা বেঁ’ধে মা’রতে শুরু করেন তিনি। পরে ঘটনাস্থলে উপস্থিত একজন নি’র্যাতনের ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দিলে তা ভাইরাল হয় এবং সমালোচনার ঝড় ওঠে।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, জামা-কাপড় খুলে যুবকের হাত পা বেঁ’ধে প্রচণ্ড শীতের মধ্যেও মাটিতে ফেলে রাখা হয়েছে। পা দিয়ে মুখে ও বুকে লা’থি মারছেন আবু তাহের।

ওই যুবকের বড় ভাই সজল চন্দ্র অভিযোগ করে বলেন, “ভাইয়ের ওপর এমন অমা’নবিক নি’র্যাতনের বিচার চেয়ে এলাকার গণ্যমান্যদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে আমরা ক্লান্ত। আবু তাহেরের বিচার চেয়ে আমি মুরাদনগর থানায় মামলা করেছি।”
দারোরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন, “ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া নি’র্যাতনের ভিডিওটি দেখেছি। অভিযু’ক্ত আবু তাহের ওই যুবকের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে পা দিয়ে আ’ঘাত করে অমা’নুষি’কতার পরিচয় দিয়েছেন। আমার বিশ্বাস প্রশাসন বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখবে।”
এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মনজুর আলম জানান, “যুবক নি’র্যাতনের ঘটনায় অভিযু’ক্ত ব্যক্তির বিরু’দ্ধে একটি মামলা হয়েছর। আসামি পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রে’প্তার করতে পুলিশ মাঠে রয়েছে।”

আরও পড়ুন