বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:৪৬ পূর্বাহ্ন

( জুয়েল রানা, তিতাস)
কুমিল্লার তিতাসে গাছ লাগানোকে কেন্দ্র করে ভাতিজির লাথিতে মোর্শেদ আলম (৫৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার (১৪ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার ভিটিকান্দি ইউনিয়নের নারায়ণপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মোর্শেদ নারায়ণপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত ভাতিজি সুমিসহ তার পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছেন।

নিহত মোর্শেদের ভাই মহসিন জানান, বাড়ির পাশের সীমানায় একটি কাঁঠাল গাছ লাগনোর সময় মুকবলকে প্রতিবেশী সোহেল গাছ লাগাতে নিষেধ করেন। এ সময়  প্রতিবেশী সোহেল মুকবলের  বড় ভাই মোর্শেদের কাছে বিচার দেন। মোর্শেদও গাছ লাগাতে নিষেধ করেন। পরবর্তীকে দুই ভাই মোর্শেদ ও মুকবলের মধ্যে বাকবিতণ্ডা

শুরু হয়। এ সময় মুকবলের ছেলে-মেয়েরা মোর্শেদকে মারধর শুরু করেন। মারধরের একপর্যায়ে মুকবলের মেয়ে সুমি (৩০) লাথি মারলে মোর্শেদের   অণ্ডকোষে আঘাত লাগে। এতে তার মৃত্যু হয়।

তিতাস থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুধীন চন্দ্র দাস  বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসেছি । পারিবারিক দ্বন্দ্বে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। পরিবারের অভিযোগ অণ্ডকোষে লাথি দেওয়ার পর মোর্শেদ মারা গেছেন। তবে কীভাবে তার মৃত্যু হয়েছে তা ময়নাতদন্ত রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত জানা যাবে না। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা আইনি ব্যবস্থা নেব। অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছেন।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: