শুক্রবার, ০১ Jul ২০২২, ০৪:২৩ অপরাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক:

‘পদ্মা’ নামে বৃহত্তর ফরিদপুরের জেলাগুলো নিয়ে একটি এবং ‘মেঘনা’ নামে বৃহত্তর কুমিল্লা ও আশপাশের জেলাগুলো নিয়ে আরেকটি নতুন বিভাগ হবে—এমন ঘোষণা আগেই দিয়েছেন সরকারের নীতিনির্ধারকেরা। তবে নতুন বিভাগ করার জন্য আনুষ্ঠানিক যে প্রক্রিয়া, তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি।

নতুন বিভাগ, জেলা, উপজেলা, সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, থানা গঠন বা স্থাপনের প্রস্তাব সরকারের প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস-সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটিতে (নিকার) অনুমোদন হতে হয়। এখন পর্যন্ত নিকারের সভায় নতুন এই দুই বিভাগের অনুমোদন হয়নি। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকেই বলছেন, নতুন বিভাগ হয়ে গেছে। প্রকৃতপক্ষে এটি ঠিক নয়।

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে (আহ্বায়ক) নিকারের সদস্য হিসেবে থাকেন সরকারের বেশ কয়েকজন মন্ত্রী ও সচিব। নিকারের সদস্য ও সরকারের একজন মন্ত্রী আজ শনিবার প্রথম আলোকে বলেন, গত বৃহস্পতিবার নিকারের সভা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরে সেটি স্থগিত করা হয়েছে। সরকার যদি সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে, তাহলে ‘শিগগির’ আবার নিকারের সভা হতেও পারে। এটি সরকারের সিদ্ধান্তের বিষয়। তবে এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত হয়নি।

গত বছরের অক্টোবরে ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে যুক্ত হয়ে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রস্তাবিত এই দুই বিভাগ নিয়ে কথা বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেদিন তিনি বলেছিলেন, ‘বিভাগের ব্যাপারে আমি একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমি দুইটা বিভাগ বানাব, আমার দুইটা নদীর নামে। একটা পদ্মা, একটা মেঘনা। এই দুই নামে দুইটা বিভাগ করতে চাই।’

এরপর বৃহত্তর ফরিদপুরের জেলাগুলো নিয়ে একটি এবং বৃহত্তর কুমিল্লা ও আশপাশের জেলাগুলো নিয়ে আরেকটি নতুন বিভাগ করার আলোচনা চলতে থাকে। এখন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন সামনে রেখে বিষয়টি নতুন করে আলোচনায় এসেছে। অনেকেই এই দুই বিভাগ চূড়ান্ত হওয়ার কথা লিখে ফেসবুকে পোস্ট দিচ্ছেন।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: