শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:০০ পূর্বাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক:

পেশায় ভ্যান চালক। বয়স চল্লিশ। আগে দুই বিয়ে করেছেন। ঘরে দু’টি সন্তানও রয়েছে। এই ভ্যান চালক আব্দুর রহিম নবম শ্রেণিতে পড়া এক কিশোরীকে ফুসলিয়ে নিয়ে এসেছেন। সাতক্ষীরায় এনে নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে বিয়ে করার চেষ্টার সময় ধরা খেয়েছেন তিনি।

রবিবার (২৭ মে) সাতক্ষীরা আদালত চত্ত্বরের বাগান থেকে পুলিশ তাদের ধরে নিয়ে গেছে। এখন তারা সাতক্ষীরা সদর থানা পুলিশ হেফাজতে।

বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট সাকিব হোসেন জানান, তিনি খবর পান যে তাসলিমা খাতুন নামের ওই ছাত্রীকে তার বাড়ি যশোর জেলার মনিরামপুর উপজেলার খানপুর এলাকা থেকে ফুসলিয়ে এনেছেন আশাশুনি উপজেলার কেয়ারগাতি গ্রামের শামসুর সানার ছেলে রহিম। তাকে সহায়তা করেছেন একই এলাকার আবির হোসেন।

তিনি জানান, তারা নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে বিয়ে করার কথা বলতেই পুলিশে খবর দেওয়া হয়। এ সময় সাতক্ষীরা থানার পুলিশ তাসলিমা, রহিম ও তার বন্ধু আবিরকে থানায় নিয়ে যায়।

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: